পরিমিতি – তাহসান

আমি অর্ধের চেয়ে বেশী, ভাঙ্গার চেয়ে ভালো
ছিন্নের তরে অন্ধের কালো
আমি শূন্য দিয়ে পূর্ণ হয়েছি
চূর্ণ হয়েও ধন্য রয়েছি
পণ্য অতি নগন্য, আমার তুল্য মূল্য স্বল্প

আমি মৃত তটিনীর ডাঙা ভাঙা কূল
বন্যতরুর ঘৃণ্য ছেঁড়া ফুল
আমি বাঁকা চোখের রুক্ষ আঁকা হাসি
দূর হতে কেউ আর বোলোনা ভালোবাসি।

আমি অল্প স্বল্প গল্প কথক
যুদ্ধে জিতেও আমি হারা অশোক
আমি তীর হলেও নিশানা আমার ব্যর্থ
বোকা আমি এটাই ধুর্ত

প্রেমাতাল – তাহসান

এ যেন সহজ স্বীকারোক্তি আমি যুগান্তরী নই
এ যেন ভীষন আক্ষেপ আমার আমি দিক্বিজয়ী নই
শুধু একটাই আশা আমি বুকে জড়িয়ে
রব সারাটি জীবন তোমায় নিয়ে
কোনো এক নিঃসঙ্গ রোদেলা রাতে দেখেছি
প্রিয়তমা তোমার চোখে মিষ্টি হাসি
কোনো এক দুঃসহ জোছনা দিনে বাতি নিভে গেলে
কড়া নেড়েছি তোমার হাতের ঘরে
কিছু অর্থহীন শব্দ গুনে ডেকেছি তোমায়
প্রেম তুমি কোথায়…

বিন্দু আমি তুমি আমায় ঘিরে, বৃত্তের ভেতর শুধু তুমি আছো
মাতাল আমি তোমার প্রেমে, তাই অর্থহীন সবি যে প্রেম লাগে (২)

প্রেম নিয়ে কত শত কবি কত কাব্য করলো
বৃথাই জীবনটা কাদা মাখামাখি করে অশ্রু ঘুম পাড়ালো
ভেবে ছিলাম নিজেকে স্রোতের বিপরীতে একজন
প্রেম নিয়ে মাতামাতি সুধু আধিখ্যেতা

কেন তুমি শোনালে সেই দুষ্টু হাসি
কেন দূর আলাপনের সেই মিষ্টি কবিতা,
কেন তুমি শোনালে সেই মিষ্টি হাসি
কেন দূর আলাপনের সেই মিষ্টি কবিতা

আজ শিকল পরিয়ে আমার চোখে তুমি প্রেম আঁকছ
কাঁদতে পারছিনা আমি…

বিন্দু আমি তুমি আমায় ঘিরে, বৃত্তের ভেতরে শুধু তুমি আছো
মাতাল আমি তোমার প্রেমে, তাই অর্থহীন সবি যে প্রেম লাগে,
বৃহস্পতির বলয় ঘিরে শনিতে আজ আমি পৌছে গেছি
তোমার প্রেমে পাগল হয়ে পাগলামির ভাবসম্প্রসারণ করেছি

বিন্দু আমি তুমি আমায় ঘিরে, বৃত্তের ভেতর শুধু তুমি আছো,
মাতাল আমি তোমার প্রেমে, তাই অর্থহীন সবি যে প্রেম লাগে…\

ভুলতে পারবেনা – তাহসান

পায়ে পায়ে পথ চলা
কুয়াশায় ঢাকা এ শহরে
খয়েরী চাদরে জড়ানো আমি
আর জড়ানো শীতের আদরে

পায়ে পথ চলা মেঘে ঢাকা ভোরের আলোতে
যতদূর চোখ যায় নেই যে কেউ আর
আমি একা ভোরের আলোতে

শুকিয়ে যাওয়া পাতাগুলো
এই পায়ের চিহ্ন রেখে দেয়
তবে বেঁচে থাকা মানুষগুলো কেন
হৃদয়ের চিহ্ন মুছে দেয়?

ভুলতে তুমি পারবে না আমার এ গান
ভুলতে তুমি পারবে না এই ভোরের অভিমান
ভুলতে তুমি পারবে না সেই নিঃশর্ত উপহার
আমার প্রেম

লিখে যাই আজও তোমায় নিয়ে
শব্দ, গল্প আর কবিতা
তাকিয়ে থাকি আজও খয়েরী দেয়ালে
টাঙ্গানো যে তোমার ছবিটা

শর্ত ছিলোনা, শর্ত আজও নেই
নিঃশর্ত এ প্রেমে
অলিখিত আজও চাওয়া আমার
ভুলবে না তুমি আমাকে।

নেই – তাহসান

এইতো সেদিন কল্পনাতে ছিলে তুমি
অলস অধর চুমি
আঁচলে ঢাকা মুখটা মোমের মত
হাতে রাঙা মেহেদী
দমকা হাওয়াতে উড়ে গেল ঐ আঁচল
সত্য অসত্যের মাঝে যা ছিল অগোচর

নেই কোন কল্পনা আজ তোমায় নিয়ে
নেই কোন প্রার্থনা আজ তোমায় চেয়ে
নেই কোন কামনা তোমায় সাজিয়ে
নেই কোন প্রেরণা তুমি কোথায় হারিয়ে

এইতো সেদিন রৌদ্রজ্বলা দুপুরে গোপন অভিসারে
স্পর্শ তোমার বৃষ্টি হয়ে ছুঁয়ে যেত
সময় চলত সুরে সুরে
হঠাৎ ঝড় এসে বদলে দিল সময়
নির্বাক বিস্ময়ে তুমি জানালে চিরবিদায়

যন্ত্রমানব – তাহসান

নিশ্চুপ নিরবতা, খোলা অতীতের পাতা
ঘুণে ধরা মলাটের পরতে পরতে ধুলোমাখা
আমার জমে থাকা কত কথা
কত মতাদর্শে অবুঝ সেজেছি
কত প্রলোভনের মায়া মুছেছি

সবটুকু ত্যগ আমি মেনে নিতে পারি
বিশ্বাস মোর বিশালতায়
তবে কিসের খোঁজে নিশ্চুপ নিরবতা এলে
ফিরে যাই স্মৃতির পাতায়

যন্ত্রমানব হয়ে দিনের কর্ম শেষে
ফিরি যখন আঙিনায়
কিসের খোঁজে নিশ্চুপ নিরবতা এলে
ফিরে যাই স্মৃতির পাতায়

উর্বর সমতলে এখন আমার বিচরণ
অতীতের পাতায় কিছু শেখরের নিদর্শন
আমার না বলা কত কথা …

কে আঁকে অন্য ছবি – তাহসান

মাঝে মাঝে তোমায়
ভেবে এলোমেলো লাগে সবি
মাঝে মাঝে তোমার চোখে কে আঁকে অন্য ছবি (২)
কিছুতে তোমার মনটা আমি বুঝতে পারিনা
এত চেনা তবু যেনো লাগে অচেনা (২)
মাঝে মাঝে তোমায়
ভেবে এলোমেলো লাগে সবি
মাঝে মাঝে তোমার চোখে কে আঁকে অন্য ছবি
মাঝে মাঝে আকাশে চেয়ে উদাসী হয়ে থাক
বুঝিনা যে তখন তুমি কার কথা যে ভাব
কিছুতে তোমার মনটা আমি বুঝতে পারিনা
এত চেনা তবু যেনো লাগে অচেনা (২)
মাঝে মাঝে তোমায়
ভেবে এলোমেলো লাগে সবি
মাঝে মাঝে তোমার চোখে কে আঁকে অন্য ছবি
মাঝে মাঝে কথার ফাঁকে হঠাৎ তুমি থেমে যাও
বুঝিনাত যে কথাটি আড়াল করে যে যাও
কিছুতে তোমার মনটা আমি বুঝতে পারিনা
এত চেনা তবু যেনো লাগে অচেনা (২)
মাঝে মাঝে…
মাঝে মাঝে তোমায়
ভেবে এলোমেলো লাগে সবি…

মেঘের পরে – তাহসান

বুঝিনি এতটুকু তোমাকে
হারিয়েছিলাম স্বপ্নের ঘোরে
কতটা পথ ঘুরে এসেছি
তুমি বন্ধু আমার ছিলে পাশে
মেঘের পরে আলোর ভীড়ে
তুমি প্রথম চেয়েছিলে
বুঝিনি আমি তোমাকে দেখে
রেখেছো যে কত মায়া-প্রেম
বুঝতে দাও নি কোন আমাকে
সাজিয়েছো যা হৃদয়ে
ছাঁয়া হয়ে ছিলে পাশে
বল কি করে যাবো তোমায় রেখে…

হঠাৎ এসেছিলে – তাহসান

হঠাৎ এসেছিলে চোখের আলোতে
হারিয়ে ফেলেছি এক ঝলকে
তবুও তুমি ছিলে চোখের কোণে
আগলে রেখেছি বড় যতনে
ভালোবেসেছি তোমাকে প্রথম
চোখের আলোতে এসেছ যখন
ছিলে হৃদয় জুড়ে প্রতিক্ষণে
ভালবাসা তো হয়না মনের বিপরীতে।
এটাই কি প্রণয়ের অনুভূতি
তাই কতটা পথ খুঁজে ফিরে এসেছি
হঠাৎ তোমার ছায়ায় আহ্বান
তাই ভুলে গেছি যা পিছুটান
ভালোবেসেছি তোমাকে প্রথম
চোখের আলোতে এসেছ যখন
ছিলে হৃদয় জুড়ে প্রতিক্ষণে
ভালবাসা তো হয়না মনের বিপরীতে।
মাঝে মাঝে তোমাকে বুঝিনা কেন
তোমায় ঘিরে যে কত বেদনা
এসো না তুমি আঁধার ভুলে আলোতে
জড়িয়ে নিবো মায়ার চাদরে
ভালোবেসেছি তোমাকে প্রথম
চোখের আলোতে এসেছ যখন
ছিলে হৃদয় জুড়ে প্রতিক্ষণে
ভালবাসা তো হয়না মনের বিপরীতে…

আলো – তাহসান

তুমি আর তো কারো নও শুধু আমার
যত দূরে সরে যাও রবে আমার
স্তব্ধ সময়টাকে ধরে রেখে
স্মৃতির পাতায় শুধু তুমি আমার
কেন আজ এত একা আমি
আলো হয়ে দূরে তুমি
আলো আলো আমি কখনো খুঁজে পাবনা
চাঁদের আলো তুমি কখনো আমার হবে না

রোমন্থন করি ফেলে আশা
দৃশ্যপট স্বপ্নে আঁকা
লুকিয়ে তুমি কোন সুদুরে
হয়তো ভবিষ্যতের আড়ালে
ঘাসের চাদরে শুয়ে একা
আকাশের পানে চেয়ে জেগে থাকা
তবে আজ এত একা কেন

আলো হয়ে দূরে তুমি
আলো আলো আমি কখনো খুঁজে পাবনা
চাঁদের আলো তুমি কখনো আমার হবে না

কতদূর – তাহসান

ঐ দূরের আকাশ আজ রঙিন হল বদলে যাওয়ার নিয়মে,
তাই বদলে গেছে সব
ইচ্ছেগুলো সঙ্গী করে তোমাকে
দেখো উড়ছে দূরে কত রঙিন
ঘুড়ি উড়তে থাকা মিছিলে,
আর দেখছি তোমায় দু’চোখ
জুড়ে বন্দী তোমার মায়াতে
কত দূর, কত পথ একা একা ছুটে যাওয়া,
দিন শেষে পথের বাঁকে অবাক
হয়ে খুঁজে পাওয়া…তোমাকে ।
ঘুম ভেঙ্গে ওঠা ভোরের উদাস হাওয়া চোখ
মেলে তাকিয়ে,
ডানা মেলে ওড়া স্মৃতির ঘরে ফেরা তোমায়
জুড়ে হারিয়ে,
কত দূর, কত পথ একা একা ছুটে যাওয়া,
দিন শেষে পথের বাঁকে অবাক
হয়ে খুঁজে পাওয়া…তোমাকে।
অনেক অবুঝ চাওয়া তোমায়
ফিরে পাওয়া আঁধার কোথায় পালিয়ে,
মনের গহীন দ্বারে সময় কড়া নাড়ে…
আছো তুমি পাশে…